চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯

ভারতের অদক্ষ ডাক্তারদের বাংলাদেশে এনে প্রতারণা!

প্রকাশ: ২০১৯-০৬-০৭ ১৭:৫৫:২৩ || আপডেট: ২০১৯-০৬-০৭ ১৭:৫৫:২৩

বাংলাদেশের মানুষ যাদের আর্থিক অবস্থা ভালো, তারা প্রয়োজন হলেই উন্নত চিকিৎসার জন্য চলে যান ভারত থেকে শুরু করে ব্যাংকক, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া এমনকি লন্ডন, আমেরিকাতেও। যাদের এতটা সামর্থ্য নেই তারা থাকেন বাংলাদেশে কর্মরত বিদেশী ডাক্তারদের খোঁজে।

দেশের চিকিৎসা সেবার ওপর দ্বিধা ও আতঙ্ক থেকেই অনেকটা এই অবস্থা। এছাড়া দেশের নিরীহ রোগীদের নিয়ে নানা রকম প্রতারণা চলছেই। ফলে বরাবরই বিদেশী ডাক্তারদের চাহিদা থাকে বেশি। আর দেশে বিদেশী ডাক্তার বলতে ভারতীয় ডাক্তারদের সংখ্যাই বেশি।

অন্যদিকে, ভারতবর্ষে ডাক্তারের অভাব নেই। হাজার হাজার মেডিকেল কলেজ থেকে নতুন ডাক্তার বিশেষজ্ঞ বের হচ্ছে। অভিযোগ উঠেছে এই নতুন অদক্ষ ডাক্তারদের ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের নানা শহরে নিয়ে চলছে রোগী প্রতারণা। বলা হচ্ছে এরা ভারতবিখ্যাত ডাক্তার। বাস্তবে বেশীর ভাগই নতুন ডাক্তার। সে সব রাজ্যে ভালো জমে নি বলে তাদেরকে ডাকলেই পাওয়া যায়। আর এখানেও কিছু প্রতিষ্ঠান এদেরকে নামকরা ডাক্তার ভাঙিয়ে রোগীদের ঠকাচ্ছে।

যদি সত্যিকার অর্থে ডা. অধ্যাপক দেবী শেঠি, অধ্যাপক ডা. বিন্দু কুট্টি, অধ্যাপক ডা. জনার্দন রেড্ডির মত ভারতগৌরব ডাক্তাররা বাংলাদেশের রোগীদের নিয়মিত সেবা দেন, তাতে উপকৃত হবেন রোগী। কিন্তু তা হওয়ার নয়। তারা অনেকেই প্রাইভেট প্রাকটিস করেন না। তাদের সেবা পেতে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের নিয়ম মেনে শিডিউল পেতে হয়। হাসপাতাল থেকেই তারা বিশাল অঙ্কের বেতন পান। নিয়ম মেনে রোগী দেখেন।

বাস্তবের এই সমস্যার কারণে প্রতারক চক্র অনামী অদক্ষ ডাক্তারদের বিশাল ডাক্তার বিজ্ঞাপন দিয়ে রোগী ঠকিয়ে ব্যবসা করছে। এই অনৈতিক ব্যবসায় বন্ধ হওয়া দরকার। বাংলাদেশের স্বাস্থ্য সেক্টরের অব্যবস্থার কারণে এখানে সবরকম প্রতারণা চলছে। অডাক্তার ডাক্তার সেজে বাণিজ্য করছে। প্রকৃত এমবিবিএস ডাক্তার ডাক্তার প্রতারকদের অপকর্মের জন্য সমাজে ধিক্কৃত হচ্ছে।

এ ব্যাপারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কনসালটেন্ট ডা. সরদার আতিক বলেন, ‘বি‌দেশ থে‌কে কোন ডাক্তাররা এদে‌শে আসে? যারা ও‌দে‌শে রোগী পায় না তারা। ঢাকায় যে প্র‌ফেসররা রোগী দে‌খে কু‌লি‌য়ে উঠ‌তে পা‌রেন না তারা কিন্ত ঢাকার বা‌হি‌রে প্রাক‌টি‌সে যান না। কা‌জেই বুঝ‌তে হ‌বে বি‌দেশী ডাক্তার ব‌লে আপ‌নি কা‌কে দেখা‌তে যা‌চ্ছেন। দে‌বি শেঠী নিশ্চয়ই এদে‌শে এসে রোগী দেখ‌বেন না।’

Leave a Reply

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ

June 2019
S M T W T F S
« May    
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  
%d bloggers like this: