চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮

‘নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত, প্রার্থী ৩০০ আসনে : এরশাদ

প্রকাশ: ২০১৮-১০-২০ ১৫:২৭:২৮ || আপডেট: ২০১৮-১০-২০ ১৫:২৭:২৮

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। এখন থেকেই যাত্রা শুরু হোক। আমরা তিনশ’ আসনে প্রার্থী দেবো। আমরা ৩০০ আসনে নির্বাচন করতে চাই।’

শনিবার (২০ অক্টোবর) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মিলিত জাতীয় জোটের মহাসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

এরশাদ বলেন, ‘মানুষ পরিবর্তন চায়, দেশে পরিবর্তনের ঢেউ লেগেছে। মানুষ জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখতে চায়।’

সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘নির্বাচন হওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছি, নির্বাচন হবে কি-না জানি না। তবে জাতীয় পার্টি অবাধ-নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়।’

এসময় অতীত ইতিহাস তুলে ধরে এরশাদ জানান, তিনি ক্ষমতা ছেড়ে দেওয়ার পর অনেক নির্যাতন সহ্য করেছেন। শান্তিতে ঘুমাতেও পারেননি।

তিনি বলেন, ‘আমরা জাতীয় পার্টি সবসময় নির্বাচন করেছি। আজও আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। তবে আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। অবাধ নির্বাচন চাই। নিশ্চয়তা চাই, আমরা যারা সংসদে আছি সকলের সমন্বয়ে নির্বাচনকালীর সরকার গঠন করতে হবে।’

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমরা নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। এখন থেকেই যাত্রা শুরু হোক। আমরা ৩০০ আসনে মনোনয়ন দেবো। নির্বাচনের যারা করতে চাও, এগিয়ে আসো। ’

তিনি বলেছেন, আমরা জোটগতভাবে নির্বাচন করব। সুযোগ আসছে, যারা নির্বাচন করতে চাও, আসো। যোগ্য প্রার্থী দাও। আমরা ৩০০ আসনে প্রার্থী দেব। এ মাসের মধ্যেই পার্লামেন্টারি বোর্ড গঠন করা হবে। তৃণমূলের সমর্থনে মনোনয়ন দেওয়া হবে।

সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘শেষ কথা, নির্বাচনের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। আমি নতুন করে ১৮ দফা কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। আমরা নির্বাচনের পদ্ধতি পরিবর্তন করতে চাই। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা চাই। শিক্ষা পদ্ধতি সংস্কার চাই। স্বাস্থ্যসেবার সম্প্রসারণ চাই। শান্তির রাজনীতি চাই। সড়ক নিরাপত্তা চাই।’

তিনি বলেন, আগামী নির্বাচন হয়ত আমার জীবনের শেষ নির্বাচন। নির্বাচন নিয়ে অনেক সংশয় আছে। হবে কিনা জানি না। একটা দল ৭ দফা দফা দিয়েছে, এগুলো এই সংবিধান অনুয়ায়ী মানা সম্ভব না। তবে আমরাও সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। সবার অংশগ্রহণে নির্বাচনকালীন সরকার চাই।

এরশাদ বলেন, এত লোক হয়েছে, আশা করিনি। সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।

মহাসমাবেশে সিনিয়র কো চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ বলেন, আমরা ক্ষমতায় যাবই যাব। এজন্য দলকে সংগঠিত করতে হবে। যে উন্নয়নের ধারা সূচিত হয়েছে, জাতীয় পার্টিই সেটা ধরে রাখতে পারবে।

তিনি বলেন, জনগণের কথা চিন্তা করতে হবে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় যেতে চায়। এজন্য দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

সম্মিলিত জাতীয় জোটের এ সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন, জাতীয় পার্টির কো চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সালমা ইসলাম, ফয়সল চিশতী, আবু হোসেন বাবলা, খেলাফত মজলিশের জোবায়ের আহমদ আনসারী, ইসলামিক ফ্রন্টের এমএ মান্নান, আবু সুফিয়ান, বিএনএর সেকান্দর আলী প্রমুখ।

আরও উপস্থিত ছিলেন, জাপার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন বাবলু, কাজী ফিরোজ রশিদ, খেলাফত মজলিশের মাওলানা মাহফুজুল হকসহ জোটের শীর্ষ নেতারা।

 

Leave a Reply

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ

October 2018
S M T W T F S
« Sep   Nov »
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031  
%d bloggers like this: