চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮

নওগাঁয় বাবার হাতে শিশু ধর্ষণ

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-২৭ ১০:১৩:২৩ || আপডেট: ২০১৮-০৬-২৭ ১০:১৩:২৩

নওগাঁয় নরপশু পিতা কর্তৃক ১০ বছর বয়সের সৎ কন্যাকে হত্যাসহ বিভিন্ন হুমকি দিয়ে দীর্ঘ ৫/৬ মাস ধরে ধর্ষণ ( যৌন নির্যাতন ) করে আসছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অমানবিক সৎ পিতা কর্তৃক শিশু কন্যাকে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে জেলার মহাদেবপুর উপজেলার নওহাটামোড় পুলিশ ফাঁড়ি এলাকার খোর্দ্দনারায়নপুর নিচপাড়া গ্রামে।

স্থানীয় কয়েকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, খোর্দ্দনারায়নপুর নিচপাড়া গ্রামের মৃত হারেজ মন্ডলের ছোট ছেলে লম্পট আনিছুর রহমান (৪১) কয়েক বছরের ব্যবধানে পরপর ৩টি বিয়ে করেন। এমনকি তার প্রথম স্ত্রীর-কন্যাকে নিজ গ্রামেই ভাতিজার সাথে বিয়েও দিয়েছেন। গ্রামের লোকজন আরো জানান, বর্তমানে লম্পট নারীলোভী আনিছুর রহমানের প্রথম ও তৃতীয় দুই স্ত্রী একই গ্রামে আলাদা বাড়িতে বসবাস করেন এবং মেঝ স্ত্রী ঢাকা শহরে বসবাস করেন। সম্প্রতি তৃতীয় স্ত্রী বানু বেগম (৩৮) তার পূর্বের স্বামীর পক্ষের দুই সন্তান কন্যা লাভলী আক্তার লিজা (১০) ও পুত্র শামিম হোসেন (৪) কে নিয়ে স্বামীর সংসার করে আসছিলেন।

নরপশু লম্পট সৎ পিতা আনিছুর রহমান তার স্ত্রীর অজান্তে ১০ বছর বয়সের সৎ কন্যা লাভলী আক্তার লিজাকে দীর্ঘ প্রায় ৫/৬ মাস ধরে কাউকে না বলার জন্য হত্যাসহ বিভিন্ন হুমকি দিয়ে ধর্ষণ( যৌন নির্যাতন) করে আসছিল। কিন্তু সোমবার নির্যাতিত শিশু লাভলী আক্তার লিজা (১০) তার মায়ের কাছে ঘটনাটি প্রকাশ করলে ঘটনাটি গ্রামবাসীর মাঝে জানাজানি হয়। মঙ্গলবার বিকালে সরেজমিনে খোর্দ্দনারায়নপুর নিচপাড়া গ্রামে গেলে বেরিয়ে আসে এই অমানবিক শিশু ধর্ষণ (যৌন নির্যাতনের) ঘটনা।

শিশু লাভলী আক্তার লিজা নিজেই তার সৎ পিতা কর্তৃক ধর্ষণ (যৌন নির্যাতনের) পুরো ঘটনা খুলে বলেন। লাভলী আক্তার লিজা বলেন, আমার সৎ পিতা আনিছুর রহমান আমার মাকে বিয়ে করার পর থেকেই আমার মা কাজে বাইরে গেলেই আমার সৎ পিতা আমার শরীরের কাপড় খুলে আমার সাথে খারাপ কাজ শুরু করেন, আমি ঘটনাটি মাকে জানাতে চাইলে আমাকে হত্যাসহ বিভিন্ন হুমকি দেওয়ার কারণে আমি কাউকে কিছুই বলিনি এমনকি আমাকে নওহাটামোড় বাজারে নিয়ে যেয়ে রাত হওয়ার পর বাসায় ফেরার পথে পাট ক্ষেতেও আমার সাথে খারাপ কাজ করেছে তবুও আমি ভয়ে নিরব ছিলাম।

সোমবার মা আমাকে বাড়িতে সৎ পিতার কাছে রেখে নানার বাড়িতে গেলে, সৎ পিতা আনিছুর রহমান বাড়িতে আমাকে একা পেয়ে একের পর এক নোংরা কাজ করতে থাক। আমি বাঁধা দিলেও আমার বাঁধা না শুনে আমাকে মারপিট করে আমার সাথে নোংরা কাজ চালাতেই থাকে, এসময় সুযোগ বুঝে আমি বাড়ি থেকে বাইরে চলে আসি। মা বাড়িতে আসলে মাকে সব ঘটনা বলে দেয়ায় মা নরপশু সৎ পিতাকে গালিগালাজ করলে সৎ পিতা প্রথমে ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য মাকে ও আমাকে আবার ভয়ভীতি দেখায়।

এসময় আমার মা প্রতিবাদ করলে নরপশু আনিছুর রহমান আমাদের থাকার ঘরে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যান। ঘটনার ন্যায় বিচার ও সৎ পিতা নামের নরপশুর বিচার ও দাবি করেন শিশু লাভলী আক্তার লিজা ও তার মা। অপরদিকে ৩জন স্ত্রী থাকা সত্বেও সৎ কন্যাকে ধর্ষণ করার ঘটনাটি গ্রামবাসীর মাঝে প্রকাশ পাওয়ার পর থেকেইে গ্রামের লোকজনও পিতা নামের কলঙ্ক লম্পট নরপশু আনিছুর রহমানের শাস্তি দাবি করেছেন।

Leave a Reply

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ

%d bloggers like this: